অফবিট

রুপিতে গান্ধীর সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন রবীন্দ্রনাথ ও আবদুল কালাম 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলারে দেশটির প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াশিংটন, বেঞ্জামিন ফ্র্যাঙ্কলিন, থমাস জেফারসন, অ্যান্ড্রু জ্যাকসন, আলেকজান্ডার হ্যামিলটন ওআব্রাহাম লিঙ্কনের ছবি রয়েছে।

এদিকে এশিয়ার দেশ জাপানের মুদ্রা ইয়েনেও ব্যাকটিরিওলজিস্ট হিদেয়ো নোগুচি, নারী লেখক ইচিও হিগুচি ও ইউকিচি ফুকুজাওয়ার ছবি রয়েছে।

সৌদি আরবের মুদ্রা রিয়েলেও দেশটির বাদশাহ আব্দুল্লাহ, বাদশাহ ফয়সালসহ একাধিক ব্যক্তির ছবি বহন করে। তবে নিজেদের নোটেও এমন বৈচিত্র্য আনতে চায় ভারত সরকার।

ভারতীয় মুদ্রা রুপিতে কেবল দেশটির জাতির জনক মাহাত্ম গান্ধীর ছবি রয়েছে। গান্ধীর পাশাপাশি দেশে যাদের অনস্বীকায অবদান রয়েছে তাদের ছবিও যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ভারতের ব্যাংক নোটে দেশটির জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর ছবি রয়েছে। এবার নোটে পরিবর্তন আনার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রণালয় ও রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই)।

আমেরিকান ডলারে বিভিন্ন প্রেসিডেন্টের ছবি

ভারতের নতুন রুপির নোটে গান্ধীর পাশাপাশি স্থান পেতে যাচ্ছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও সাবেক রাষ্ট্রপতি এ পি জে আবদুল কালামের ছবিও।

ভারতের অর্থমন্ত্রণালয়ে বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টাইমস ও ডেকান হেরাল্ড সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নতুন করে যেসব নোট ছাপা হবে, তাতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও এপিজে আবদুল কালামের ওয়াটারমার্ক ছবি যুক্ত করবে কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রণালয় ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

আবদুল কালাম ভারতের এগার তম রাষ্ট্রপতি ছিলেন। বিজ্ঞানী হিসেবে পারমাণবিক অস্ত্র অর্জনের প্রকল্পে অসামান্য অবদান রয়েছে তার। কালাম ভারতীয়দের কাছে ‘মিসাইলম্যান’নামে পরিচিত। আর রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নোবেলজয়ী প্রথম বাঙালি।

নোটে রবীন্দ্রনাথ ও কালামের ছবি যুক্ত করা লক্ষে কাজ শুরু করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সিকিউরিটি প্রিন্টিং অ্যান্ড মিনটিং কো–অপারেশন অব ইন্ডিয়া (এসপিএমসিআইএল)।

জাপানি ইয়েনে একাধিক ব্যক্তির ছবি

মাহাত্ম গান্ধী, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও আবদুল কালামের ছবিযুক্ত ব্যাংক নোটের দুই সেট নমুনাও ইতোমধ্যে তৈরি করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এখন চলছে যাচাই।

যাচাই-বাচাইয়ের জন্য নতুন নোটের নমুনাগুলো দিল্লিতে অবস্থিত ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (আইআইটি) ইমেরিটাস প্রফেসর দিলিপ টি সাহানির বরাবর পাঠানো হয়েছে।

অধ্যাপক সাহানি ইলেকট্রোম্যাগনেটিক ইনস্ট্রুমেন্টেশন এক এক্সপার্ট বা বিশেষজ্ঞ। চলতি বছরের জানুয়ারিতে সাহানিকে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত করেছে নরেন্দ্র মোদির নের্তৃত্বাধীন বিজেপি সরকার।

সাহানির যাচাই–বাছাইয়ের পর দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার নোট ছাপানোর চূড়ান্ত অনুমোদন দেবে। তবে কবে নাগাদ রবীন্দ্রনাথ ও কালামের ছবিযুক্ত নতুন নোট বাজারে আসবে তা বলা হয়নি।

সৌদি আরবের রিয়াদে বিভিন্ন বাদশাহর ছবি

ইন্ডিয়া টাইমমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, আরবিআইয়ের অভ্যন্তরীণ কমিটি ২০১৭ সালে নতুন সিরিজের ব্যাংক নোটের নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্যগুলো যাচাইয়ের কাজ শুরু করে।

২০২০ সালে কমিটি প্রতিবেদন জমা দেয়, যেখানে ২ হাজার রুপি বাদে বাকি সব রুপির নোটে গান্ধীর পাশাপাশি রবীন্দ্রনাথ ও আবদুল কালামের ছবি যুক্ত করার সুপারিশ করা হয়।

উল্লেখ্য, ১৯৬৯ সাল থেকে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া রুপির ওপর গান্ধীর ছবি ছেপে আসছে। সে সময় শুধুমাত্র ১০০ রুপির নোটের ওপর গান্ধীর ছবি ছাপা হতো। সে ছবিটি সেবাগ্রাম আশ্রমে থাকাকালীন সময়ে তোলা হয়েছিল।

মহাত্মা গান্ধীর ছবি সম্বলিত ভারতীয় সিরিজ নোট

এরপর ১৯৮৭ সালে গান্ধীর ছবিটা আবার বদলায়। বর্তমানে যেটা রাষ্ট্রপতি ভবন, ব্রিটিশ আমলে সেটাই ছিল ভাইসরয়ের বাড়ি। সেখানে ১৯৪৬ সালে গান্ধীজির আরেকটি ছবি তোলা হয়। ১৯৮৭ সালের অক্টোবরে একটি ৫০০ রুপির নোটে প্রথম ওই ছবি ছাপানো হয়।

পরবর্তী সময় থেকে সেই ছবিই ৫, ১০, ২০, ১০০, ২০০, ৫০০ আর ২,০০০ রুপির নোটে প্রচলন রয়েছে। এরপর ১৯৯৬ সাল থেকে টানা ছাপা হয়েছিল মহাত্মা গান্ধীর ছবিসহ সিরিজের নোট।

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া টাইমস ও ডেকান হেরাল্ড

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও পড়ুন