লাইফ স্টাইল

যৌন মিলনে দীর্ঘ বিরতি ভালো না খারাপ 

প্রতিদিন যৌন মিলন শুধু যে আপনাকে খুশি রাখে তা কিন্তু নয়, একই সাথে সুস্থ ও সবল থাকতেও সাহায্য করে।

সারাদিনের কর্মব্যস্ত জীবনে দৌড়াদৌড়ির অনেকেই সেক্স লাইফে বিরতি খুঁজতে চান ৷

আপনার হার্টের জন্য, স্মৃতি শক্তির সমস্যায় যৌন মিলন যেমন ভীষণ উপকারি আবার দীর্ঘ বিরতি শরীরের জন্য নেতিবাচক বয়ে আনার আশঙ্কা রয়েছে।

চলুন জেনে নিই যৌন মিলনে দীর্ঘ বিরতি যে ধরনের ক্ষতি বয়ে আনতে পারে-

হার্টকে প্রভাবিত করে:

যৌন মিলনে দীর্ঘ বিরতি হার্টের জন্য নেতিবাচক প্রভাব বয়ে আনে। বিরতির ফলে কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকি বাডড়ে, যাতে শরীরের জন্য ভালো না।

কারণ সহবাস শুধু যে অতিরিক্ত ক্যালোরি পোড়ানোর একটি চমৎকার উপায় তা নয়, যৌন মিলন ইস্ট্রোজেন ও প্রোজেস্টেরনের মাত্রার মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে ৷ যার ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কম হয়।

মানসিক চাপ ও উদ্বেগ বাড়ায়:

যৌন মিলনের সময় শরীরে এন্ডোরফিন ও অক্সিটোসিনের মতো হ্যাপি-হরমোন নিঃসৃত হয়। আপনি যদি দীর্ঘদিন সহবাস থেকে বিরতি নেন, শরীরে এই হরমোনগুলোর কম নিঃসরণ হয় ৷

ফলে মানসিক চাপের সাথে সংগ্রাম করা খুবই কঠিন হয়, যার কারণে বাড়ে উদ্বেগ, যা শরীরের জন্য খুবই নেতিবাচক।

স্মৃতিশক্তির সমস্যা বাড়ে:

যৌনতার অভাব স্মৃতি শক্তির সমস্যা বাড়াতে পারে। প্রাথমিক পর্যায়ের কিছু গবেষণায় প্রকাশ করা হয়েছে যে কেউ যখন সহবাস করা বন্ধ করে দেন, তখন স্মৃতিশক্তির সমস্যা হতে পারে।

মজার বিষয় হল, নিয়মিত যৌন মিলন স্মৃতিশক্তির উন্নতি করে ৷ বিশেষ করে ৫০ থেকে ৮৯ বছর বয়সীদের জন্য এটি খুবই উপকারি।

যৌন ইচ্ছা কমায়:

শুধুমাত্র নিয়মিত সেক্সই লিবিডো বা সেক্সুয়াল ড্রাইভকে বাড়াতে পারে ৷ তাই আপনি যত বেশি সেক্স করবেন, ভবিষ্যতে আপনার যৌন ইচ্ছাও তত বাড়বে কমবে না।

রোগ প্রতিরোধে সমস্যা :

নিয়মিত যৌন মিলন শরীরকে অসুস্থতার বিরুদ্ধে সংগ্রামী হওয়ার জন্য তৈরি করে থাকে। সহবাস করার কারণে “ইমিউনোগ্লোবুলিন এ” অ্যান্টিবডি বাড়ে।

তাতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী হয়। তাই নিয়মিত যৌন মিলন করার প্রয়োজন।

ভ্যাজাইনাল হেলথ :

দীর্ঘ যৌন বিরতি নারীদের যোনির স্বাস্থ্যের জন্য়ও খুব একটা ভাল নয়। এর ফলে নারী শরীর উত্তেজিত হতে অনেক বেশি সময় নেয়। নিয়মিত হস্তমৈথুন যোনি টিস্যুগুলিকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে কারণ এটি রক্ত প্রবাহকে উন্নত করে।

ব্যথা ও যন্ত্রণা বাড়ায়:

যৌন মিলনের সময় এন্ডোরফিন ও অন্যান্য হরমোনের উচ্চ প্রবাহ মাথা, পিঠ ও পায়ের ব্যথা কমাতে সাহায্য করতে পারে ৷

ফলে যৌনমিলনের ফলে বাতের ব্যথা ও মাসিকের ক্র্যাম্পের ক্ষেত্রেও আরাম দেয়।

শারীরিক ও মানসিক নানা সমস্যার বেড়াজালে আটকে না থাকতে চাইলে নিয়মিত যৌন মিলন করার পরামর্শ দিয়েছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও পড়ুন

পদ্মা সেতুতে গাড়ির গতিসীমা ও পালনীয় নির্দেশনা

পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা ও স্থায়িত্ব রক্ষার্থে ব্যবহারকারীদের জন্য কিছু নির্দেশনা […]