লাইফ স্টাইল

বিদ্যুতের অপচয় কমানোর কৌশল 

কয়েকদিন ধরে বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলোতে লোডশেডিং দেখা যাচ্ছে। এই তালিকায় আছে অস্ট্রেলিয়া, চীন, জাপান, ভারত পাকিন্তান নেপাল ও শ্রীলঙ্কাসহ বহু দেশ।

বাংলাদেশেও লোডশেডিং বাইরে নয়। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে হঠাৎ লোডশেডিং বেড়ে গেছে।

জানা গেছে, রাশিয়া- ইউক্রেন সংকটের কারণে তেল ও গ্যাসের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে, যার ফলে বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।

অজান্তে প্রতিদিনই অনেক বেশি বিদ্যুৎ অপচয় করার ভুরি ভুরি উদাহরণ রয়েছে। একই সঙ্গে প্রযুক্তির পরিমাণ বৃদ্ধিও তো অবিরাম চলছে।

তাই বলে তো আর বিদ্যুৎ ব্যবহার না করে থাকা যাবে না। বিদ্যুৎ অপচয়ের বিষয়টিও বিবেচনায় রাখতে হবে।

চলুন বিদ্যুৎ অপচয় রোধের কিছু কৌশলজেনে নিই –

  • টিউব লাইটে ইলেকট্রিক্যাল ব্যালেষ্ট ব্যবহার না করে উন্নত মানের ইলেকট্রনিক্স ব্যালেষ্ট ব্যবহার করুন তাতে বিল অনেক কম আসবে।
  • ফ্যানে ইলেকট্রনিক্স রেগুলেটর বিদ্যুৎ বিলের খরচ সাশ্রয় করে।
  • দেয়ালের বিভিন্ন পয়েন্টে অযথা চার্জার লাগাবেন না। প্রয়োজন না হলে প্লাগ খুলাসহ সুইচ অফ রাখুন।
  • দরকার ছাড়া ওভেন, ফ্যান, পিসি অফ করে রাখুন।
  • বিদ্যুৎ সংযোগ খারাপ বা ত্রুটিপূর্ণ হলে সংযোগ সারান তাতে বিল কম আসবে।
  • পুরোনো লাইট বাল্ব বদলে এনার্জি সেভার বাল্বের ব্যবহার ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত সাশ্রয়ী।
  • ওয়াশিং মেশিন একই সঙ্গে বিদ্যুৎ ও পানি উভয়ের অপচয় করে।
  • ড্রায়ারে বা ফ্যান ছেড়ে কাপড় না শুকিয়ে বেলকুনি অথবা ছাদে ছড়িয়ে দেন।
  • রেফ্রিজারেটরের কয়েল বছরে অন্তত দু’বার পরিষ্কার করলে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয়
  • সবসময় এসির ফিল্টার পরিষ্কার রাখলে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয় তাতে বিল কম আসে।
  • বাসা-বাড়িতে কাপড় আয়রণ করা থেকে বিরত থাকুন। দরকারে দোকান থেকে আয়রণ করিয়ে আনুন।
  • এসি ছেড়ে না ঘুমিয়ে দরকারে কয়েক ঘণ্টা চালিয়ে তারপর বন্ধ করে দিন ও ফ্যান চালিয়ে নিন। ফ্যানের চেয়ে এসিতে বিদ্যুৎ বেশি অপচয় হয়।
  • পানি গরম করার কাজে গিজার অথবা হিটার ব্যবহার কমান তাতে বিল কম আসবে।
  • হেয়ার ড্রায়ারের বদলে চুল বাতাসেই শুকান তাতে বিদ্যুতের বিল কম আসবে।
  • ঘর থেকে বের হওয়ার সময় লাইট ফ্যানের সুইচ অফ করার অভ্যাস করুন তাতে বিলের সুবিধা পাবেন।
  • ওভেন চালানোর অভ্যাস বাদ দিন। বিশেষ করে মাইক্রো ওয়েভ। রাইস কুকার, কারি কুকার খুব প্রয়োজন না হলে ব্যবহারে বিরত থাকুন।
  • নিয়ন গ্যাসীয় ডিম লাইট ও ইলেকট্রোনিক্স বেলাষ্ট ডিম লাইটে ৫ ভাগের এক ভাগ বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয়।
  • বাসার জানালাগুলো খুলে পর্দা সরিয়ে রাখুন। দিনের আলোয় কাজ করতে শিখুন।
  • বিভিন্ন উৎসবে এমনকি বিয়ের অনুষ্ঠানে আলোকসজ্জা অতিরিক্ত আলোকসজ্জা এড়িয়ে চললে বিল সাশ্রয় হবে।
  • সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে, রাস্তায় অযথা লাইট জ্বালানো থেকে বিরত থাকতে হবে।

বিদ্যুৎ ব্যবহারে উপরের নিয়মগুলো মেনে চললে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করা সম্ভব হবে। না হলে বিদ্যুতের অপচয় করা কঠিন হবে। তাতে অন্ধকারে থাকতে হবে যখন তখন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও পড়ুন