অফবিট

গির্জা থেকে মসজিদ,তারপর জাদুঘর, আবার মসজিদ

প্রীতি তানজিয়া:

৮৮ বছর পর তারাবির নামাজ অনুষ্ঠিত হলো তুরস্কের হায়া সোফিয়া মসজিদে। ১৯৩৪ সাল থেকে এটি যাদুঘর হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছিলো। ২০২০ সালে এটিকে আবার মসজিদে রুপান্তর করে এরদোয়ান সরকার। সে বছরের ২৪ জুলাই নামাজের জন্য উন্মুক্ত করা হয় মসজিদটি।

কিন্তু মসজিদ হিসেবে উন্মুক্ত করার পরপরই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে গেলে মসজিদটিতে নামাজ সাময়িক বন্ধ রাখা হয়।

বর্তমানে তুরস্কে বেশিরভাগ মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া এবং মৃত্যুর সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় মসজিদটি পুনরায় চালু করা হয়েছে।

হায়া সোফিয়া ৫৩২ সালে গির্জা হিসেবে নির্মিত হয়েছিল। ৯১৬ বছর গির্জা হিসেবে ব্যবহৃত হওয়ার পর তুর্কি সুলতান মাহমুদ ফাতাহ ১৪৪৩ সালে ইস্তাম্বুল বিজয়ের পর এটিকে মসজিদ হিসেবে ঘোষণা করেন।

১৪৫৩ সাল থেকে ১৯৩৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৫০০ বছর এটি মসজিদ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ১৯৩৫ সালে এটিকে যাদুঘর বানানো হয়। যাদুঘর হিসেবে ছিলো ৮৮ বছর।

১৯৮৫ সালে ইউনেস্কো হায়া সোফিয়াকে বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ঘোষণা করে। এটি দেখতে প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক তুরস্কে আসেন।

২০২০ সালে এটিকে আবার মসজিদে রুপান্তর করে এরদোয়ান। তবে মসজিদে রূপান্তর হলেও হায়া সোফিয়াতে থাকা খ্রিস্টীয় কারুকার্য ও প্রাচীর চিত্রগুলো সংরক্ষণ করা হয়েছে। নামাজের সময় এগুলো ঢেকে রাখা হয়।

Leave a Reply

আরও পড়ুন

বাংলাদেশি ড. সনজীদা খাতুনের হাতে ভারতীয় পদ্মশ্রী পুরস্কার

প্রিয়ালী সান্যাল: বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ড. সনজীদা খাতুনের হাতে ভারতের […]