খেলা

ক্রিকেটার থেকে এখন তারা রাজনীতিবিদ

তৌহিদ হাসান রোমান: ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষে রাজনীতির শুরু করেছেন এমন ক্রিকেটারের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। অনেকেই ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষ করে রাজনীতির ক্যারিয়ার শুরু করেছেন। আবার কেউ কেউ তো খেলা অবস্থাতেই পা ফেলেছেন রাজনীতির ময়দানে। বিশ্বের বাঘা বাঘা ক্রিকেটাররা রাজনীতি শুরু করেছেন ক্রিকেট শেষে।

ভারতের কিংবদন্তী মোহাম্মদ আজহার উদ্দিন, শ্রীলঙ্কার অর্জুন রানাতুঙ্গা ও সনাৎ জয়াসুরিয়া শুরু করেছেন রাজনীতির অধ্যায়। পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান তো নিজের দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। এছাড়া ভারতের গৌতম গম্ভীর হয়েছেন নিজের শহর দিল্লির সংসদ সদস্য।

তবে বাংলাদেশে ক্রিকেট থেকে রাজনীতির মাঠ খুব একটা দেখা যায় না। অবশ্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা। নিজের শহর নড়াইল-২ আসন থেকে এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি হিসেবে নির্বাচিত হন।

ভারতের হয়ে টেস্ট আর ওয়ানডে মিলে ৪৩৩ ম্যাচে ২৯টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ১৫ হাজার ৫৯৩ রান সংগ্রহ করেন আজহার উদ্দিন। ভারতের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭৪ ওয়ানডে আর ৪৭টি টেস্টে ম্যাচে নেতৃত্ব দেয়া আজহার উদ্দিন ২০০০ সালে ম্যাচ ফিক্সিয়ের অভিযোগে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ হন।

ক্রিকেট মাঠ থেকে রাজনীতিতে অংশ নিয়ে ভারতীয় কংগ্রেসের সদস্য হওয়া মোহাম্মাদ আজহারউদ্দিন।তিনি একজন মার্জিত ব্যাটসম্যান ছিলেন এবং ১৯৯০ শতকে ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ছিলেন। তিনি ১৯৮৮ সালে অর্জুন পুরস্কার লাভ করেন।

আজহারউদ্দিন লোকসভায় ভারতের সংসদ নিম্ন কক্ষ থেকে উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদ এর নির্বাচকমণ্ডলী থেকে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস একজন সদস্য হিসেবে জয়লাভ করেন।

৫৬ বছর বয়সি এই হায়দরবাদি ক্রিকেটের বাইরে রাজনীতিতেও হাত পাকিয়েছেন। ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হয়ে, রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। বর্তমানে আজহার মোরাদাবাদের কংগ্রেস সাংসদ।

গত শতকের নব্বইয়ের দশকে ভারতীয় দলকে তিনি নেতৃত্ব দেন। আজহারের নেতৃত্বেই টিম ইন্ডিয়া ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবোয়েকে টেস্ট সিরিজে হারিয়েছিল। তিনি ভারতের অন্যতম সফলতম অধিনায়ক।

শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অর্জুন রানাতুঙ্গা। ১৯৯৬ সালে দিয়েছিলেন ক্রিকেট দলের নেতৃত্ব। সেবার হয়েছিলেন বিশ্বচ্যাম্পিয়নও। এর আগের বার ১৯৯২ সালে চ্যাম্পিয়ন হয় টিম পাকিস্তান। সেবার ইমরান খানের নেতৃত্বে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয় ওয়াসিম আকরামরা। সেই ইমরান খানই সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নির্বাচনে হয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

বিপুল ভোটে জয়লাভ করা ছাড়াও দেশটির ঐতিহাসিক দুই দল পিপলস পার্টি ও মুসলীম লীগ-নওয়াজের দলকে হঠিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। ইমরানের হঠাৎ উত্থানের এই ঢেউ এবার পড়তে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কায়। দেশটির বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অর্জুন রানাতুঙ্গাও এবার প্রেসিডেন্ট হওয়ার স্বপ্নে বিভোর হয়ে আছেন।

১৯৯৯ সালে ক্রিকেট মাঠ থেকে অবসর নেওয়ার এক বছরের মধ্যেই রাজনীতিতে যোগ দেন অর্জুন রানাতুঙ্গা। চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গার হাত ধরে রাজনীতিতে আসেন লঙ্কান এই সাবেক কাপ্তান। এরইমধ্যে ২০০৪ সালে ইউএফপিএ সরকার গঠন করলে মন্ত্রীসভার সদস্য হন অর্জুন। তখন শিল্প, ভ্রমণ ও বিনিয়োগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান অর্জুন। এরপর ২০১২ সালে ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে সরে যান অর্জুন। যোগ দেন ডিএনএ নামের একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে।

এদিকে ২০১৫ সালে দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মাইথ্রিপালা সিরিশেনাকে সমর্থন দেন অর্জুন। এরপর প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পরই মাইথ্রিপালা তাকে মহাসড়ক ও পরিবহন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেন। এই দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে অর্জুন নিজেকে নিয়ে গেছেন আরও উপরে। এমনিতে সেলেব্রিটি হিসেবে রয়েছে, বিপুল জনপ্রিয়তা তার উপর আবার প্রায় দুই যুগের অভিজ্ঞতা। এরই মধ্যে বলা শুরু হয়েছে, অর্জুন-ই হতে যাচ্ছেন দেশটির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট।

শুধু অর্জুনপ্রেমীরা-ই নয়, প্রেসিডেন্ট পদে লড়ার ব্যাপারে আশা দেখছেন রানাতুঙ্গা নিজেও। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি নির্বাচনী সভায় তারই ইঙ্গিত দিয়েছেন অর্জুন রানাতুঙ্গা। আর পাকিস্তানের নির্বাচনে ইমরান খান জয়ী হওয়ার পর অর্জুনের আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেছে কয়েকগুণ। ক্রিকেট বোর্ডে যেমন তার রয়েছে তার ব্যাপক প্রভাব, তেমনি দেশের রাজনীতির মধ্যেও আছে তার জনপ্রিয়তা।

তামিল বিদ্রোহীসহ বেশ কয়েকটি গোষ্ঠীর সঙ্গে তার যোগাযোগ রয়েছে বলেও মনে করেন অনেকে। ইমরান খানের মতোই সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক বজায় রেখে ক্ষমতার মসনদে বসার স্বপ্ন দেখছেন অর্জুন রানাতুঙ্গা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও পড়ুন

খুলে যাচ্ছে ম্যারাডোনার মৃত্যুরহস্য জট

ম্যারাডোনা নামটির সাথে কমবেশি পরিচিতি রয়েছে ফুটবলপ্রেমীদের। ফুটবল ও ম্যারাডোনা […]

পাকিস্তানকে টপকে ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে ছয়ে বাংলাদেশ

রাফসান রাজ: সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ২-১ ব্যবধানে বাংলাদেশ ওয়ানডে […]

এমপি হয়েও দরিদ্র বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেন মাশরাফি !

মারিয়াম জাহান: জন্মস্থান নড়াইল হলেও দেশের আলোচিক নাম মাশরাফি। মাশরাফির […]